রংপুরে গৃহবধূ হত্যার অভিযোগে স্বামী-দেবর আটক

0
27
ছবিঃ প্রতিকী

রংপুরে শাহাজাদি বেগম (৪০) নামের এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ স্বামী মজিবর রহমান (৪৫) ও দেবর আবদুল জলিলকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকাল সাতটার দিকে রংপুর নগরের পার্বতীপুর এলাকার বাড়ি থেকে শাহাজাদি বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ার ঘটনায় স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের ধারণা।

পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, দুই সন্তানের জননী শাহাজাদি বেগমের সঙ্গে স্বামী মজিবর রহমানের প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো। স্বামীর পরকীয়া নিয়ে এই ঝগড়া বলে প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে। এরই জের ধরে গতকাল মধ্যরাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হয়। ধারণা করা হচ্ছে, রাতের কোনো এক সময় স্ত্রী শাহাজাদিকে বালিশ চাপা দিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন মজিবর। সকালে শাহজাদির মৃত্যুর খবর শুনে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দেয়।

নিহতের ছোট ভাই মনসুর আলী অভিযোগ করেন, পরকীয়ার জেরে প্রায় আড়াই বছর ধরে মজিবর-শাহজাদির দাম্পত্য জীবনে ঝামেলা চলছে। তাঁর বোনকে মারধর করা হতো।

রংপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম জানান, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে বিগত দুই থেকে আড়াই বছর ধরে পরকীয়ার জের ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে গতকাল ওই গৃহবধূকে হত্যা করা হয়েছে। তবে মৃত্যুর ঘটনাটিকে স্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে চালানোর চেষ্টা করেছিলেন স্বামী। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী মজিবর ও দেবর জলিলকে আটক করা হয়েছে। নিহতের ছোট ভাই মনসুর আলী বাদী হয়ে মামলা করবেন বলে তিনি জানান।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here