নবী ও নাজিবুল্লাহ ব্যাটে স্বপ্ন দেখছে আফগানিস্তান

0
29

ভারতের দেওয়া ২২৫ রানের জবাবে আফগানিস্তান শুরুটা ভালো করলেও ভারতীয় বোলারদের দাপটে ম্যাচে শক্ত অবস্তান তৈরি করেছে টিম ইন্ডিয়া। তবে মোহাম্মদ নবী ও নাজিবুল্লাহ জাদরানের ব্যাটে ফের জয়ের স্বপ্ন দেখছে আফগানরা। এ রিপোর্ট খেলা পর্যন্ত ৪০ ওভার শেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রান করেছে আফগানরা।

দলীয় ২৯তম ওভারের চতুর্থ ও ষষ্ঠ বলে দুই উইকেট নিয়ে ম্যাচ ভারতের দিকে নিয়ে আনেন পেসার জসপ্রিত বুমরাহ। ডানহাতি এই বোলারের আঘাতে মাঠ ছাড়েন দুই সেট ব্যাটসম্যান রহমত শাহ (৩৬) ও হাশমতউল্লাহ শহিদী (২১)। পরে যুজভেন্দ্র চাহালের বলে ব্যক্তিগত ৮ রানে বোল্ড হন আসগর আফগান।

দলীয় ২০ রানে মোহাম্মদ শামির বলে ওপেনার হজরউল্লাহ জাজাই (১০) বোল্ড হন। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ৪৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন গুলবাদিন নাঈব ও রহমত শাহ। তবে হার্দিক পান্ডিয়ার বলে বিজয় শঙ্করকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন আফগান অধিনায়ক নাঈব। ৪২ বলে দুটি চারে ২৭ রান করেন তিনি।

এর আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে যেন ভুলই করেন বিরাট কোহলি। প্রতিপক্ষের বোলারদের তোপে, বিশেষ করে স্পিনারদের একের পর এক সাফল্যে কোনঠাসা ভারত শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভার ব্যাট করতে পারলেও ৮ উইকেট হারিয়ে ২২৪ রানের বেশি করতে পারেনি।

শনিবার (২২ জুন) বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে ৩টায় শুরু হয় এই ম্যাচটি। যেখানে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। তবে ব্যাটিংয়ে নেমেই টের পায় গত পাঁচ ম্যাচে বাজে খেলে হারা আফগানদের শক্ত বোলিং ইউনিটকে।

৬৪ রানের মধ্যেই দুই উইকেট হারিয়ে বসে ভারত। রানের চাকা ঘোরানো লোকেশ রাহুলকে ফিরিয়ে দেন মোহাম্মদ নবী। নিজের করা প্রথম ওভারের দ্বিতীয় বলেই নবী ফেরান রাহুলকে। ৫৩ বলে ৩০ রান করা রাহুল হজরতুল্লাহ জাজাইয়ের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। এর আগে, দলীয় মাত্র ৭ রানেই ফেরেন ওপেনার রোহিত শর্মা। ব্যক্তিগত এক রানে মুজিব উর রহমানের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি।

দলীয় ১৩৫ রানে ভারতের চার উইকেট নিয়ে ম্যাচে নিজেদের লড়াইয়ের জানান দেয় আফগানিস্তান। যেখানে মোহাম্মদ নবীর বলে রহমত শাহ’র কাছে ক্যাচ দেন বিরাট কোহলি। দলীয় সর্বোচ্চ ৬৩ বলে ৫টি চারে ৬৭ রান করেন ভারতীয় অধিনায়ক।

এর আগে রহমত শাহ’র বলে এলবি হয়ে ফেরেন বিজয় শঙ্কর (২৯)। তিনি তৃতীয় উইকেট জুটিতে বিরাট কোহলির সঙ্গে ৫৮ রান করেন।

মহেন্দ্র সিং ধোনি ও কেদার যাদব লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিলেও ধীর গতিতে রান তুলতে থাকেন তারা। পরে ধোনি তো নিজের মেজাজ ঠিক রাখতে না পেরে স্টাম্পিং হন এদিন দুর্দান্ত বল করা রশিদ খানের বলে। টেস্টের মতো ব্যাট করা ধোনি ৫২ বলে ৩টি চারে ২৮ রান করেন।

শেষ দিকে কেদার যাদবের ব্যাটেই মূলত দু’শ রানের কোটা পার করেন ভারত। তিনি গুলবাদিন নাঈবের বলে আউট হওয়ার আগে ৬৮ বলে ৩টি চার ও একটি ছক্কায় ৫২ রান করেন। ভারতীয় ইনিংসে এই একটি ছক্কাই এদিন দেখা যায়।

আফগান বোলারদের মধ্যে দারুণ বল করা মোহাম্মদ নবী ও নাঈব সর্বোচ্চ দুটি করে উইকেট পান। তবে সবচেয়ে কৃপণ বোলিংয়ের তকমা জোটে মুবিজ উর রহমানের কপালে। ১০ ওভারে মাত্র ২৬ রান দিয়ে একটি উইকেট তুলে নেন এই লেগস্পিনার। আফতাব আলম, রশিদ ও রহমত শাহ’ও একটি করে উইকেট ভাগ করে নেন।

চলতি বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত কোনো জয়ের দেখা পায়নি আফিগানিস্তান। অন্যদিকে এখন পর্যন্ত কোনো ম্যাচে হারের মুখোমুখি হয়নি ভারত। এই ম্যাচ জিতলে ভারত চলে আসবে পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here