দেশের সব থানা থেকে রাজাকারের তালিকা সংগ্রহ করা হচ্ছেঃ আ ক ম মোজাম্মেল

0
47
উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। আটঘরিয়া, পাবনা

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে দেশের সব থানা থেকে রাজাকারের তালিকা সংগ্রহ করা হচ্ছে। শিগগিরই সম্পূর্ণ ও অবিকৃত অবস্থায় সে তালিকা প্রকাশ করা হবে।’ শুক্রবার সকালে পাবনার আটঘরিয়ায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘বিচারিক প্রক্রিয়ায় আদালতের মাধ্যমে যেসব যুদ্ধাপরাধীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয়েছে, তারা দেশের প্রচলিত আইনেই অপরাধী প্রমাণিত হয়েছে। আদালতের রায়ের বিরোধিতা করে যারা যুদ্ধাপরাধীদের নির্দোষ দাবি করে, তারা দেশের সংবিধানকে অস্বীকার করে। তাদের বিষয়ে সরকার সজাগ রয়েছে।’

প্রস্তাবিত বাজেটে মুক্তিযোদ্ধাদের মাসিক ১২ হাজার টাকা ভাতা দেওয়ার ঘোষণা করা হলেও তা আরও বাড়বে বলে মন্তব্য করেন মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, ‘দুই ঈদ, পয়লা বৈশাখ ছাড়াও স্বাধীনতা ও বিজয় দিবসে বিশেষ বোনাস দেওয়া হবে। এ ছাড়া মৃত মুক্তিযোদ্ধাদের দাফনে সরকার প্রত্যেককে ১৪ হাজার টাকা করে দেবে, যা তাঁদের গার্ড অব অনারের পূর্বেই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে।’

পাবনার জেলা প্রশাসক কবির মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন (অ্যাটকো) সভাপতি ও স্কয়ার গ্রুপের পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা অঞ্জন চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিল পাবনা জেলা ইউনিট কমান্ডের সাবেক কমান্ডার হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার শেখ রফিকুল ইসলাম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, আটঘরিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম, আটঘরিয়া পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম ও আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আকরাম আলী।

উল্লেখ্য, উপজেলায় ১ কোটি ৭০ লাখ ৮৩ হাজার ৪৮৫ টাকা ব্যয়ে তিনতলা বিশিষ্ট ওই মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সটি নির্মাণ করা হয়েছে।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here