৩০ বছর ধরে সেলাই করা একটি প্রাগৈতিহাসিক চিত্রকর্ম সম্প্রতি উন্মোচন

0
47

সচেতন বার্তা, ১৬ জুলাই:যুক্তরাজ্যের হার্টফোর্ডশায়ারের রয়স্টন নামক অঞ্চলে হাতে সেলাই করা একটি চিত্রকর্ম সম্প্রতি উন্মোচন করা হয়েছে। প্রাগৈতিহাসিক কালের ইতিহাসের চিত্র দিয়ে ৮৫ ফুট দীর্ঘ দেওয়াল ঢাকার একটি পর্দায় এই বিশেষ চিত্রকর্মটি আঁকা হয়েছে। এই চিত্রকর্মটির কাজ শেষ করেতে প্রায় ৩০ বছর সময় লাগে। স্বেচ্ছাসেবীদের তৈরি এই শ্রেষ্ঠ শিল্পকর্মটিতে প্রাগৈতিহাসিক দানব, রোমান অধিবাসী, কালো মৃত্যুর ভয় এবং রাজকীয় অপহরণে চিত্র আঁকা হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের হার্টফোর্ডশায়ারের রয়স্টন নামক অঞ্চলে তিন দশক ধরে ৬০ জন শিল্পী কাজ করেন এই চিত্রকর্মটি ফুটিয়ে তুলতে। তারা এই শিল্পকর্মটিতে ১৫টি দৃশ্যে সেলাই করেন।

এই শিল্পকর্মটির আঁকানোর কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা বলছেন, তারা এই শিল্পকর্মটির মূল্য প্রকাশ করবে না। গত সপ্তাহেই এই শিল্পকর্মটি প্রদর্শন এর ব্যবস্থা করা হয়। প্রদর্শনিতে হাজার হাজার দর্শককে আকৃষ্ট করে ওই শিল্পকর্মটি।

যারা এই শিল্পকর্মটি দেখেছেন তাদেরকেই এটি নিয়ে গেছে কল্পনার জগতে। নিয়ে গেছে ৫৬ বিলিয়ন বছর আগের ইতিহাসে। তারা দেখেছেন, যুক্তরাজ্যের রাজা জেমস-১ এর কুকুরা কিভাবে সাধারণ মানুষদের অপহরণ করে নিয়ে যেতো। কিভাবে তিনি আদালতের দ্বারা মানুষের ক্ষতি করতেন তাও দেখায়।

এই শিল্পকর্মটিতে দেখা যায়, রহস্যময় রায়স্টন গুহ, রোমানদের রাস্তা নির্মাণ ও শেষ হওয়ার কাজ এবং অগাস্টিনিয়ান পিরিয়ডের কিছু চিত্র।

হাত দিয়ে সেলাই করা এই চিত্রকর্মটি শত শত বছরের ষড়যন্ত্র প্রকাশ করেছে। শুধু তাই নয়ে এটি প্রাগৈতিহাসিক কালের কিছু বিদ্বেষপূর্ণ চিত্রও প্রকাশ করেছে।

অবিশ্বাস্য এই পরিকল্পনাটি শুরু হয় বার্লিন ওয়ালের পতনের আগে। ১৯৯৮ সালের দিকে এ কাজের পরিকল্পনা শুরু করা হয়। আর এই কাজরে প্রথম সেলাইটি করা হয় যখন প্রথমবার ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড প্রিমিয়ার লীগের বিজয়ী হয়েছিল। এরপর এই শিল্পকর্মের কাজ ধীরে ধীরে এগিয়ে যায়।

শহরটির একটি যাদুঘরের তত্ত্বাবধায়ক ও ম্যানেজার মাদেলিন ওডেন্ট বলেন, এই শিল্পকর্মটি শহরটির পুরোনো ইতিহাসের সাক্ষ্য দেয়। কিন্তু এটির সর্বজনীন গ্রহেণযোগ্যতা রয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত এই শিল্পকর্মটি টাউন হল প্রদর্শিত হয়। রয়স্টন শহরে এটির স্থায়ী প্রদর্শনীর স্থান তৈরি করতে কাজ করা হচ্ছে।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here