পুলিশ ফোর্স নাকচ, ব্যাংকের আশ্বাস: ডিসি সম্মেলন

0
25

সচেতন বার্তা, ১৯ জুলাই: ডিসি সম্মেলনে প্রতিটি জেলার ডিসির অধীনে আলাদা পুলিশ ফোর্স চাওয়া হয়েছিল। সেটি নাকচ করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তবে প্রশাসন ক্যাডারের কর্মচারীদের জন্য একটি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার বিষয়টি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় খতিয়ে দেখবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার পাঁচ দিনব্যপী ডিসি সম্মেলনের শেষ দিন ছিল।

শেষ দিনের দ্বিতীয় কার্য-অধিবেশন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, জেলার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ডিসিদের সঙ্গে পরামর্শ করে একযোগে কাজ করে। তাই ডিসিদের জন্য বিশেষ ফোর্সের প্রয়োজন নেই। একই দিনের প্রথম অধিবেশন শেষে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘আলাদা একটি ব্যাংকের দাবি ডিসিরা করেছেন। সেটা আমরা বিবেচনা করব বলেছি।’ গতকালের শেষ দিনে ডিসি সম্মেলনে মোট চারটি কার্য-অধিবেশন ছিল। এর সবটিতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদসচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ এটি আমাদের নির্বাচনী ওয়াদা। সেই সঙ্গে মাদক, সন্ত্রাস ও চরমপন্থার বিরুদ্ধে জনসচেতনতা বাড়াতে বলেছি ডিসিদের। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ডিসি সম্মেলন প্রতিবছরই হয়। তাঁরা দায়িত্ব পালন করতে গেলে জেলায় কী কী সমস্যা হয় তা আমাদের জানান, আমরা সে অনুযায়ী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিই।’ তিনি বলেন, সব ডিসির সঙ্গে ফলপ্রসূ বৈঠক হয়েছে। সবাইকে আন্তরিকতা ও স্ব্বচ্ছতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের জন্য নির্দেশ দিয়েছি।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, জেলায় জেলায় সাধারণ মানুষের সমস্যা সমাধানে গণশুনানি আরো কত কার্যকরভাবে করা যায় সে বিষয়ে ডিসিদের উদ্যোগ নিতে বলেছি। ডিসি অফিসগুলোকে পুরোদমে ডিজিটালাইজড করার জন্য বলেছি। সেই সঙ্গে জেলা হাসপাতাল ও পাসপোর্ট অফিসগুলোকে দালাল ও দুর্নীতিমুক্ত করতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দিয়েছি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘গত নির্বাচনে আমাদের ইশতেহারে ছিল যে আমরা দুর্নীতিমুক্ত জনপ্রশাসন গড়ে তুলব। জনকল্যাণমুখী জনপ্রশাসন গড়ে তুলব। সেই কার্যক্রম এরই মধ্যে শুরু করেছি। ১০ বছরে এ সরকার মাঠপর্যায়ে জনপ্রশাসনকে জনগণের খুব কাছাকাছি নিয়ে গেছে। এর বাইরে ডিসিদের গাড়ির জন্য তেল খরচ বাড়ানো, অফিস স্টাফদের পদোন্নতিসংক্রান্ত বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছি।’

দুর্নীতি দমন কমিশন

ডিসি সম্মেলনে দুর্নীতি দমন কমিশনের জন্য আলাদা কোনো কার্য-অধিবেশন না থাকলেও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অধিবেশনের ফাঁকে ডিসিদের সঙ্গে আলোচনার সুযোগ দেওয়া হয় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদকে। ডিসিদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য শুধু মামলা করা নয়, দুর্নীতি প্রতিরোধ ও দমন করা।’ তিনি বলেন, আইন অনুযায়ী সরল বিশ্বাসে কৃতকর্ম অপরাধ না। তবে সরল বিশ্বাস যেন সরল বিশ্বাসই হয়, তা নিশ্চিত হতে হবে। তিনি বলেন, জেলা ও উপজেলার প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুলপর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মানবিক ও সামাজিক মূল্যবোধসম্পন্ন ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে শিক্ষা দেওয়া হচ্ছে কি না তা মনিটর করার জন্য ডিসিদের বলেছি।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here