ডেঙ্গু মোকাবেলায় ঢাকার দুই সিটির গতিহীন তোড়জোড়

0
70

সচেতন বার্তা, ২৪ জুলাই:ডেঙ্গু মোকাবিলায় দুই সিটি করপোরেশন বিভিন্ন উদ্যোগের কথা বললেও মাঠ পর্যায়ে তা অনেকাংশেই অকার্যকর। নগরবাসীর অভিযোগ, ঘটা করে উদ্বোধনের পর ঝিমিয়ে পড়ে সব কার্যক্রম। যদিও মানতে নারাজ কর্তৃপক্ষ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুই সিটি করপোরেশনেরই প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে ঘাটতি আছে। এজন্য দূরদর্শিতার অভাবকেই দুষছেন তারা।

২১ জুলাই রাজধানীর কাঁঠালবাগান ঢালের ২৮৭ নম্বর বাড়ি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয় দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে লার্ভা ধ্বংস করার অভিযান। লক্ষ্য ১৫ দিনে ২৫ হাজার বাড়ি।

ঠিক দুই দিন পরে কাঁঠালবাগানের সেই ফ্রি স্কুল স্ট্রিট রোড। জানা গেল, সেদিন মেয়র যে দুই বাড়ি ঘুরে গেছেন তার ঠিক সামনের বাড়িতেই লাগেনি এই কার্যক্রমের ছোঁয়া ।

পাশের বাড়ির একজন জানান, মেয়র যেদিন এসেছে, সেদিন তো অনেক ওষুধ দিতে দেখলাম, তার পরে আর দেখলাম না।

এর আগে ১৫ জুলাই চালু হয় ফ্রি চিকিৎসার বিশেষ হেল্প লাইন। সিটি করপোরেশন ২৫ হাজারের বেশি নাগরিকের সেবা দেয়ার দাবি করলেও, প্রশ্ন আছে সেবার মান নিয়ে।

ডেঙ্গু আক্রান্ত একজন ভুক্তভোগী বলেন, হেল্প লাইনে প্রথমে ফোন দিতেই ধরে বলে এই এলাকায় তাদের অন্য টিম আছে, তাই হটলাইনে আবার ফোন দিতে বলেন। তাদের আমি জানালাম, আমি এত অসুস্থ, আপনারাই একটু জানিয়ে দেন। পরে তারা জানাবে বলে আর কোনো ফোনই দেননি।

গত সোম ও মঙ্গলবার এই দুই দিনে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্মাণাধীন ভবনে অভিযান চালিয়ে প্রায় দশ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অন্যদিকে উত্তরেও চলছে ক্রাশ প্রোগ্রাম। যদিও সেখানেও রয়েছে ক্ষোভ অসন্তোষ।

একজন এলাকাবাসী বলেন, ১০-১৫ দিন হয়ে গেছে কেউ আসেনি।

এতো উদ্যোগের মাঝেও চলতি মাসে সব রেকর্ড ছাপিয়ে গেছে ডেঙ্গু। নিজেদের মধ্যে সমন্বয়, যথাযথ পরিকল্পনা আর সঠিক বাস্তবায়নের অভাব আছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এখন পর্যন্ত এবছর ৫ জনের ডেঙ্গুতে মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here