গত অর্থবছরে ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা রাজস্ব আদায়

২০১৮-১৯ অর্থবছরে সংশোধিত রাজস্বের লক্ষ্যমাত্রা ছিল দুই লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ৩০ জুন পর্যন্ত আহরণ হয় ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা। গত অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি ১০ দশমিক ৭ শতাংশ। ছবিঃফাইল

বুধবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভুইঁয়া জানান, গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা রাজস্ব আদায় করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

তিনি জানান, বিদাযী ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সংশোধিত রাজস্বের লক্ষ্যমাত্রা ছিল দুই লাখ ৮০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ৩০ জুন পর্যন্ত আহরণ হয় ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৯২ কোটি টাকা। গত অর্থবছরে রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি ১০ দশমিক ৭ শতাংশ।

এনবিআরের তথ্য অনুযায়ী, সংশোধিত লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী অর্থবছর শেষে ঘাটতি দাঁড়িয়েছে ৫৬ হাজার ১০৮ কোটি টাকা। নতুন অর্থবছরে লক্ষ্যমাত্রা প্রাক্কলন করা হয় ৩ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা। অর্থাৎ বিদায়ী অর্থবছরের তুলনায় ১ লাখ কোটি টাকার বেশি রাজস্ব আহরণ করতে হবে এনবিআরকে।

সংবাদ সম্মেলনে এনবিআর সদস্য কালিপদ হালদার, আলমগীর হোসেন, কানন কুমার রায়, আব্দুল মান্নান সিকদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গত অর্থবছরে রাজস্ব আহরণ কম হওয়ার কারণ সম্পর্কে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, গ্যাস, ইন্টারনেট, পোশাক খাতসহ বিভিন্ন খাতে শুল্ক-কর ছাড় ও অব্যাহতি দেওয়ার কারণে ১৫ হাজার কোটি টাকার কম রাজস্ব আয় হয়েছে। এছাড়া গত বছর আমদানি প্রবৃদ্ধি আগের বছরের তুলনায় কমে গেছে। আবার যা আমদানি হয়েছে তার মধ্যে মূলধনী যন্ত্রাংশ ও শিল্পের কাঁচামাল বেশি এসেছে। এসব কারণে রাজস্ব আয় কমে গেছে।

এদিকে সাম্প্রতিক সময়ে রাজস্ব আদায়ে প্রবৃদ্ধি কমার কারণ জানতে চাইলে এনবিআর চেয়ার‌্যান বলেন, প্রবৃদ্ধি কমলেও পরিমাণ গত দিক থেকে রাজস্ব আয় বেড়েছে।

 

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here