গণমাধ্যমে ক্যাসিনোর সংখ্যা নিয়ে:

ভুল তথ্য দিয়ে গুজব না ছড়ানোর অনুরোধ র‍্যাব ডিজির

0
88
সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, অনুরোধ করছি, কোনো ধরনের গুজব ছড়াবেন না, আতঙ্ক ছড়াবেন না। এতে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আমরা ভালো করতে গিয়ে দেশ পিছিয়ে পড়ুক এটা চাই না।

শুক্রবার বিকেলে বনানীর নরডিক হোটেলে জঙ্গিবিরোধী অভিযানে সক্ষমতা সম্বলিত র‌্যাবের বিশেষায়িত মহড়া শেষে দেশে চলমান ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানে ক্যাসিনোর সংখ্যা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের ভুল তথ্য আসছে এমন অভিযোগ করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ বলেছেন, আপনারা আমাদের পাশে আছেন ধন্যবাদ। তবে ভুল তথ্য দিয়ে গুজব ছড়াবেন না।

গণমাধ্যমে ক্যাসিনোর সংখ্যা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের তথ্য আসছে এমন ইঙ্গিত করে র‌্যাব মহাপরিচালক বলেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সব ক্যাসিনো বন্ধ করে দেব। তবে দেখছি অনেক অনুমাননির্ভর কথা হচ্ছে। চরিত্র হনন করা হচ্ছে, এটা ঠিক না। আপনারা কেউ বলছেন ৬০টি ক্যাসিনো, আবার কেউ দেড়শ।

সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, অনুরোধ করছি, কোনো ধরনের গুজব ছড়াবেন না, আতঙ্ক ছড়াবেন না। এতে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আমরা ভালো করতে গিয়ে দেশ পিছিয়ে পড়ুক এটা চাই না।

ওইসময় সাংবাদিকরা র‌্যাবের কাছে কয়টি ক্যাসিনোর সংখ্যা নিয়ে তালিকা আছে জানতে চান? এ প্রশ্নের উত্তরে বেনজীর বলেন, আমাদের কাছে যে তালিকা আছে সে অনুযায়ী কাজ করছি। আপনারা বলেন, কোথায় ক্যাসিনো আছে, আমরা অভিযান চালাবো। আমরা যদি সেক্টর বাই সেক্টর কাজ করি তাহলে সবচেয়ে ভালো হবে। দেশবাসী সঙ্গে আছে। তাই কেউ অপেশাদার আচরণ করবেন না।

এর আগে রাজধানীর বনানীর নরডিক হোটেলে জঙ্গিবিরোধী মহড়া অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে দৃশ্যের অবতারণা করা হয় যে জঙ্গি ঢুকেছে। জিম্মি করে ফেলেছে অতিথি ও হোটেল কর্মীদের। তবে কিছু সময়ের মধ্যে হোটেলটি ঘিরে ফেলে র‌্যাব। জিম্মি উদ্ধারে শুরু হয় বিভিন্ন উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার। পাশের কয়েকটি ভবনের ছাদে স্নাইপার রাইফেল নিয়ে অবস্থান নেন র‌্যাব সদস্যরা। এরই মধ্যে ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস রেসপন্স, ভেকেল, র‌্যাটার ভেকেল, জ্যামার, টিসিভি নিয়ে হোটেলটি ঘিরে ফেলে আরেকটি দল। দুই মিনিটের মধ্যে একটি হেলিকপ্টার থেকে কয়েকজন কমান্ডোকে নামিয়ে দেয়া হয় হোটেলের ছাদে। হোটেলের ভেতর থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয় গুলি। র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। ত্রিমুখি সংঘর্ষে মাত্র চার মিনিটের মধ্যে শেষ হয় অভিযান। জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার করা হয় আহত কয়েকজনকে। নিহত হয় জঙ্গিরা।

এই মহড়ায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা শাখা সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন, র‌্যাব সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, র‌্যাব বাংলাদেশে অত্যন্ত চৌকস ফোর্স হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে। বর্তমানে তাদের সক্ষমতা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা থ্রি ডাইমেনশনাল কমান্ড অপারেশন পরিবেশন করেছে। ভবিষ্যতে যদি জঙ্গি বা কোনো দুর্বৃত্ত কোনো প্রতিষ্ঠান, হোটেল বা আবাসিক ভবনে এমন জিম্মি করার চেষ্টা করে তাহলে এমনভাবেই তাদেরকে প্রতিহত করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here