ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিঃ পাপনের সমালোচনায় সাবেক ফুটবলার

0
48
সময় টিভি থেকে সংগৃহীত

“লোকমান হোসেন ভূঁইয়ার পক্ষে সাফাই গাওয়ায়, বিসিবি সভাপতি পাপনের সমালোচনা করলেন সাবেক ফুটবলার বাদল রায়। একইসঙ্গে আটককৃত লোকমান হোসেনকে বিসিবির পরিচালক পদ থেকেও বহিষ্কারের দাবি তার। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত সব ক্লাব কর্মকর্তার দ্রুত অপসারণ ও ক্রীড়াঙ্গন থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন মোহামেডান ক্লাবের সাবেক ফুটবলার ও সংগঠকরা।

‘প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানান তারা। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘লোকমান আমার বন্ধু কিন্তু আমাকে কিছু বলেনি। এটা একটা আশ্চর্য।’

‘সাবেক ফুটবলার বাদল রায় বলেন, ‘পাপন বলেছেন লোকমান তার বন্ধু। ওনার আবাহনী ঠিক আছে আর মহামেডানে উনি লোক পাঠিয়েছে বলে ধারণা। তা না হলে লোকমানের ব্যাপারে উনি সতর্ক না কেনো?’

‘ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে বিশৃঙ্খল দেশের ক্রীড়াঙ্গন। ক্রীড়া সংগঠকদের অনেকেরই নাম জড়িয়েছে ক্যাসিনোতে, অন্যরা জড়িয়েছেন বাকবিতন্ডায়। তৈরি হয়েছে মতবিরোধ, দ্বন্দ্ব। ক্যাসিনো কান্ডে এটিও অপূরনীয় ক্ষতি তো বটেই।

‘বড় কালিমাটা লেপেছে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডানের গায়ে। সমর্থক থেকে শুরু করে সাবেক কিংবা বর্তমানদের কেউই শুনতে চাননা এমন অবক্ষয়ের গল্প। প্রতিবাদে-প্রতিরোধে এবার বিক্ষোভের দুয়ার খুলেছেন সাবেকরা। হুংকার দিয়েছেন জড়িতদের সরাতে হবে, ঢেলে সাজাতে হবে মোহামেডানকে।

‘সাবেক ফুটবলার বাদল রায় বলেন, ৪২ কোটি টাকা দেশের বাইরে চলে গেছে। এটার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী লোকমান সাহেব।’ আটককৃত লোকমান হোসেন ভূঁইয়া মোহামেডানের পাশাপাশি বিসিবির’ও পরিচালক। সেই পদ থেকেও তাকে অপসারনের দাবি বাদল রায়ের।

‘ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে যে দুর্যোগ শুরু হয়েছে ক্রীড়াঙ্গনে, তা থেকে কবে মুক্তি মিলবে? ক্যাসিনোর থাবা থেকেই বা পুরোপুরি মুক্ত হবে কবে? দেখার অপেক্ষা।”

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here