বুয়েট ছাত্র ফাহাদ হত্যার আসামী সাদাত বলে:

মৃত্যুর আগে ফাহাদের আকুতিতে পানিও দেওয়া হয়নি তাকে

0
37
সাদাত বলেন, “আবরার পানি চেয়েছিল। কিন্তু ওরা (ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী) তাকে পানি দেয়নি। তাকে হাসপাতালেও নিয়ে যেতে দেওয়া হয়নি।”

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদকে যখন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা পেটাচ্ছিলেন তখন তিনি পানি পান করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু এক গ্লাস পানিও দেওয়া হয়নি তাকে।

আবরার হত্যা মামলার আসামি নাজমুস সাদাত আজ বুধবার এ কথা বলেছেন।

আবরারকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে চাইলে তাকে বাধা দেওয়া হয়েছিল দাবি করে সাদাত বলেন, “আবরার পানি চেয়েছিল। কিন্তু ওরা (ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী) তাকে পানি দেয়নি। তাকে হাসপাতালেও নিয়ে যেতে দেওয়া হয়নি।”

ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কৃত সাদাতকে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানিয়ে আজ আদালতে হাজির করে পুলিশ। আদালতে শুনানির আগে তিনি সাংবাদিকদের বলেন যে তার সিনিয়রদের মধ্যে মেহেদী হাসান রবিন, অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ সকাল, মুজাহিদুর রহমান মুজাহিদ ও মনিরুজ্জামান মনির আবরারকে সেই রাতে নির্মমভাবে পেটায়।

৬ অক্টোবর রাতে মনিরের নির্দেশে আবরারকে তার কক্ষ থেকে ডেকে এনেছিলেন বলেও আজ দাবি করেন সাদাত।

তিনি বলেন, “আবররকে তার ঘর থেকে ডেকে আনার জন্য মনির আমাকে সহ অন্যদের নির্দেশ দিয়েছিল। রাত সাড়ে ১২টার দিকে আমি আমার ঘরে চলে যাই।”

গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক মো. ওয়াহিদুজ্জামান জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাদাতকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন। শুনানি শেষে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

নাজমুস সাদাতকে গতকাল দিনাজপুর থেকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দারা। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৭তম ব্যাচের এই ছাত্র ভারতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছিল।

আবরার হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে আইন শৃঙ্খলার রক্ষাকারী বাহিনী।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here