সুখে থাকতে হলে সিঙ্গেল থাকুন, বলছে সমীক্ষা

0
52

সোশ্যাল সাইট নিয়ন্ত্রিত আজকের জীবনে নিজেকে ছাড়া সবাইকেই জোড়ায় জোড়ায় চোখে পড়ে। বসন্তের বিকেলে একা হাঁটতে হাঁটতে পাশে হাঁটা প্রেমিক যুগলকে দেখে বুকটা হু হু করে ওঠে অনেক সময়ই। কিন্তু যুগের হাওয়া মেনেই বাড়ছে ক্যারিয়ারের চাপ- কর্মক্ষেত্রে উন্নতি এবং সম্পর্কের প্রতি অঙ্গীকার খানিকটা হলেও পরস্পরবিরোধী হয়ে দাঁড়াচ্ছে। দু’দিকের তাল সামলাতে না পেরে যারা হিমশিম খেয়ে মনোকষ্টে ভুগছেন, বিজ্ঞানীরা তাদের জন্য এনেছেন স্বস্তির খবর।

একজন সঙ্গী থাকলে ভালো নিশ্চয়ই লাগে, কিন্তু বেশ কয়েকটি সমীক্ষা জানাচ্ছে, একা বেঁচে থাকাও নেহাত মন্দ নয়।

নিউ ইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজতত্ত্ববিদ এরিক ক্লিনেনবার্থের গবেষণা জানাচ্ছে, যারা একা থাকেন, তারা সঙ্গীর সঙ্গে যারা থাকেন তাদের তুলনায় সামাজিকভাবে অনেক বেশি সক্রিয়। যেসব শহরে সিঙ্গেল লোকজনের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে বেশি, সেসব শহরে একটা ক্রমবর্ধমান সামাজিক সংস্কৃতি রয়েছে।

সমাজবিজ্ঞানী নাতালিয়া সার্কিসিয়ান এবং নাওমি গার্স্টেলের গবেষণা অনুসারে, সিঙ্গেল মানুষ অনেক বেশি সামাজিক হন এবং মেলামেশা করেন। তাদের একে অপরের সঙ্গে সম্পর্ক এতটাই দৃঢ় হয় যে বিপদে আপদে তারা একে অপরকে সাহায্যও করে থাকেন।

সিঙ্গেল মানুষেরা শারীরিকভাবে অনেক বেশি ফিট হন। ১৮-৬৪ বছর বয়সি ১৩,০০০ জনকে নিয়ে করা সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, যারা জীবনে কখনও বিয়ে করেননি, তারা ব্যায়াম এবং শরীরচর্চার দিকে অনেক বেশি মনোযোগ দেন।

পাশাপাশি এটাও জানা যাচ্ছে, যে একা থাকা মানুষজন অনেক বেশি আত্মস্থ হন সঙ্গীর সঙ্গে থাকা মানুষের তুলনায়। তারা ব্যক্তিগত দিক থেকে অনেক বেশি উন্নত এবং তাদের চিন্তাভাবনা অনেক বেশি গুছনো হয়। ১৯৯৮ সালের পরিবার এবং সংসার নিরীক্ষণ বা সার্ভে অফ ফ্যামিলি অ্যান্ড হাউজহোল্ডস জানিয়েছিল, সিঙ্গেল মানুষেরা ব্যক্তিগত বিকাশের দিক থেকে অনেক বেশি এগিয়ে। আজকের পৃথিবীর জন্য যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here