নিজেই হামলা চালিয়ে জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে ফেসবুকে স্ট্যাটাস

0
57

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফিরোজ আনামের উপর হামলার ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত কর্মী অনিক মাহমুদ বনিসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আজ রবিবার ভোরে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে, শুক্রবার সন্ধ্যায় ফিরোজের কাছ থেকে ছিনতাইকালে তার মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত ও ছুরিকাঘাত করে ছিনতাইকারীরা। এতে ফিরোজের মাথায় গুরুতর জখম হয়। অথচ হামলার দিন (শুক্রবার) রাতেই তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে জড়িতদের দ্রুত শনাক্ত করে গ্রেফতারের আওতায় আনতে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলেন অভিযুক্ত অনিক মাহমুদ বনি।

তিনি ওই স্ট্যাটাসে লিখেছিলেন, ‘রাজশাহী কিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের ১ম বর্ষের শিক্ষার্থী ফিরোজ আনামের উপর হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত সনাক্ত করে গ্রেফতারের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি’।

শুধু নিজের ফেসবুক পোস্টেই নয়, জাতীয় দৈনিক একটি পত্রিকার একজন সাংবাদিকের এক স্ট্যাটাসেও অপরাধীকে শনাক্তের বিষয়ে কমেন্ট করেন বনি।

গত শুক্রবার রাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ হবিবুর রহমান হলের সামনের মাঠে ছিনতাইকারীদের হামলায় গুরুতর আহত হন অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষার্থী ফিরোজ আনাম। এরপর থেকে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা ও ঠিনতাইকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। হামলাকারীদের শাস্তি চেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতিবাদ জানান সারাদেশের মানুষ।

এরপর সেই ছিনতাই ও হামলার ঘটনায় জড়িত বনিসহ মোস্তাফিজুর রহমান মিঠু নামে রাজশাহী কলেজ ছাত্রলীগের এক কর্মীকে আজ রবিবার গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটিও জব্দ করেছে পুলিশ।

এর আগে ২০১৭ সালে ছিনতাইয়ের ঘটনায় ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার হয়েছিলেন অনিক মাহমুদ বনি।

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানান, হামলায় আহত শিক্ষার্থী ফিরোজ আনাম গ্রেফতারদের শনাক্ত করেছেন। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ছিনতাইয়ে জড়িত থাকার কথা স্বীকারও করেছে তারা।

রিপ্লে করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here