এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষা সংক্রান্তে ঢাকা বোর্ডের বিজ্ঞপ্তি

ফাইল ছবি।

চলমান মহামারি করোনাভাইরাসের জন্য একপ্রকার স্থবির হয়ে আছে শিক্ষাঙ্গন। অনলাইনে ক্লাস পরীক্ষা চললেও বন্ধ রয়েছে এসএসসি-এইচএসসির মতো পাবলিক পরীক্ষাগুলো। এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে কি না, তা নিয়েও রয়েছে ধোঁয়াশা।

সোমবার এক বিজ্ঞপ্তিতে বোর্ড জানিয়েছে, ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষার জন্য তালিকাভুক্ত সব কেন্দ্রকে কোভিড স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা নিতে হবে।

এ পরিস্থিতিতে গত ১ জুন থেকে এসএসসির নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ শুরু করেছে ঢাকা বোর্ড। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ চলবে। নন-এমপিও কোনো প্রতিষ্ঠান বা ভাড়া করা ভবনে পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে নতুন কেন্দ্রের আবেদন না করতে বলেছে বোর্ড।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, নতুন কেন্দ্রের জন্য আবেদন বাবদ ৩ হাজার টাকা (অফেরতযোগ্য) এবং কেন্দ্র পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ১ হাজার টাকা (অফেরতযোগ্য) ফি সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে জমা দিতে হবে। ফি জমা দেয়ার স্লিপ আবেদনপত্রের সঙ্গে জমা দিতে হবে।

তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ও ঢাকার চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

সোমবার (০৭ জুন) একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি এ কথা জানান।

নেহাল আহমেদ বলেন, পরীক্ষা কবে হবে তা এখনও নিশ্চিত নয়। আমাদের সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া আছে। পরিস্থিতির উন্নতি হলেই আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

এদিকে চলমান করোনা পরিস্থিতিতে সব কেন্দ্রে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড। ইতোমধ্যে পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছে তারা। এ জন্য পরীক্ষার নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ শুরু করা হয়েছে।

এদিকে কয়েক মাস আগে এসএসসি পরীক্ষার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে। সিলেবাস প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর ৮৪ দিন ক্লাস করিয়ে পরীক্ষা নেওয়া হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here