প্রসাধনী সংরক্ষণে রাখতে পারেন ফ্রিজে

0
55
প্রতীকী ছবি।

ত্বকের যত্নে নারীরা বিভিন্ন ধরনের প্রসাধনী ব্যবহার করেন। তবে সংরক্ষণের অভাবে অনেক প্রসাধনী মেয়াদ উত্তীর্ণের আগেই নষ্ট হয়ে যায়। অনেকে আবার তা টেরও পান। তাই এমন প্রসাধনী ব্যবহারের পরে ত্বকে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। দীর্ঘদিন প্রসাধনী সংরক্ষণ করতে চাইলে তা রাখতে পারেন ফ্রিজে। যদিও এ বিষয়ে অনেকেরই ধারণা নেই!

বিউটি প্রোডাক্ট ঘরোয়া তাপমাত্রায় রাখলে তা অনেক সময় গলে যায়। যেমন লিপস্টিক বা লিপ বাম গরমে গলে যেতে পারে। পরবর্তীতে ওই পণ্য ফেলে দিতে হয়। তাই নির্দিষ্ট কয়েকটি প্রসাধনী ভালো রাখতে ফ্রিজে রাখুন। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক ফ্রিজে কোন কোন প্রসাধনী সংরক্ষণ করবেন।

>> ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে পারেন লিপস্টিক। গরমে অনেক সময় লিপস্টিক গলে যাওয়ার পাশাপাশি লিপস্টিকের রং বদলে যেতে পারে। এছাড়াও ফ্রিজে রাখলে লিপস্টিকে থাকা ন্যাচারাল অয়েল ভালো থাকে।

>> ত্বকের যত্নে অ্যালোভেরা জেলের জুড়ি মেলা ভার। সাধারণ ঘরোয়া তাপমাত্রায় অ্যালোভেরা জেল রাখলে তা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই এটি ফ্রিজে রাখুন।

>> ফেসিয়াল মিস্ট ও টোনার সবাই ব্যবহার করেন। এগুলোও ফ্রিজে রাখতে পারেন তাহলে দীর্ঘস্থায়ী হবে। এছাড়াও ঠান্ডা মিস্ট ও টোনার ত্বকে খুব ভালো কাজ করে।

>> ফ্রিজে রাখা সিরাম ত্বককে শান্ত করে। ঠান্ডা সিরাম ত্বকের ছিদ্রভাব কমায়। এমনকি এটি অনুভূতিকে জাগ্রত করে ও রক্ত সঞ্চালন বাড়ায়।

>> ত্বককে হাইড্রেট ও ময়েশ্চারাইজ করতে সাহায্য করে ফেস বা শিট মাস্ক। এটিও ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে পারেন। যাদের ত্বক জ্বালাপোড়া করে বা ত্বক সংবেদনশীল তাদের জন্য ঠান্ডা ফেস মাস্ক ব্যবহার করা ভালো।

>> শীত বা গরম সব সময়ই ঠোঁটের যত্নে লিপ বাম ব্যবহার করা জরুরি। তবে গরমে ঘরের তাপমাত্রায় রাখলে সাধারণত লিপ বাম গলে যায়। তাই এটি ঠিক রাখতে ফ্রিজে সংরক্ষণ করুন। দীর্ঘদিন ভালো থাকবে। সূত্র: বোল্ডস্কাই

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here